প্রবন্ধ

অণুগল্প

কবিতা

উপন্যাস

পেপার ব্যাক

অন্যান্য

লেখক

জাফর সাদেক

জাফর সাদেক

জন্মভূমি: পদ্মাতীরে প্রায় দুইশত পঞ্চাশ বছরের পুরানো নয়নাভিরাম শহর পাকশী…

Sr. Manager-Tea Estates
Bayer CropScience Ltd.

(Bayer- বছরের অধিক পুরানো জার্মানভিত্তিক একটি গবেষণালব্ধ বহুজাতিক প্রতিষ্ঠান)

কবিতাগ্রন্থ- দু’টি

তাঁকে ছোঁয়া যেন ঈশ্বর ছুঁয়ে থাকা

হাজং যুবতীর চুরুট (ফেব্রুয়ারিÑ২০১৮)

জাফর সাদেক

জাফর সাদেক জন্মভূমি: পদ্মাতীরে প্রায় দুইশত পঞ্চাশ বছরের পুরানো নয়নাভিরাম...

জ. ই. মানিক

কিছু একটা বলাটাই যখন বাধ্যবাধকতাÑবাহুল্য এবং আপেক্ষিক বাতুলতা বাদ রাইখা মাহবুব লীলেন থাইকা ধার কইরা বলতে হয়Ñ ‘আনফিট মিসফিট হইয়া হামাগুড়ি দিয়া হাঁটি, আর রাত্তিরে ক্যালেন্ডারের পাতায় দাগ টাইনা চিক্কুর দিয়া কইÑ যাহ শালা বাঁইচা গেলাম আরও একটা দিন।’

এইটা বড়োবেশি জৈবিক বাঁচা
মানবিক বাঁচনের স্বপ্নও দেখি না বহুদিন
বড়ো তরাসে আছি
বড়ো বেশি চাইপা আছি, নিজের গলা নিজে।

জ. ই. মানিক

কিছু একটা বলাটাই যখন বাধ্যবাধকতাÑবাহুল্য এবং আপেক্ষিক বাতুলতা বাদ রাইখা...

ইসমত আরা

ইসমত আরা। জন্ম: ২১ আগস্ট ১৯৬৭ইং, লালমনিরহাট জেলার হাতিবান্ধা থানায় গড্ডিমারী ইউনিয়নে। শিক্ষাগত যোগ্যতা- বিএসএস। পেশা- শিক্ষকতা, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। পিতাঃ মৃত্য ইয়াছিন আলি প্রধান শিক্ষক। মাধ্যমিক উচ্চ বিদ্যালয়। মাতা- মোছাঃ জোবেদা বেগম পেশা- গৃহিনী। এক ভাই চার বোনের মধ্যে আমি বড়। দুই ভাই বোন বুয়েট অধ্যায়ন শেষে ভাইটি ১৭ তম বি. সি. এস পাশ করে বাংলাদেশে একজন প্রথম শ্রেণির কর্মকর্তা। বোনটি আমেরিকার ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে পি এইচ ডি ডিগ্রী লাভ করে সেখানে একজন প্রথম শ্রেণির কর্মকর্তা এবং সেখানে সেটেল। মেজো বোন- এম এ, এম এড। একটি মাধ্যমিক স্কুলে শিক্ষকতা পেশায় আছেন। ছোট বোন এমএসসি, বিএড। ব্যাংক কর্মকর্তা। স্বামী মৃত আব্দুস ছাত্তার, সন্তান- তিন মেয়ে, এক ছেলে। বড় দুই মেয়ে মাস্টার্স পাশ। ছেলে ইঞ্জিনিয়ারিং অধ্যায়নরত। ছোট মেয়ে নবম শ্রেণি। লেখালেখির শুরু ছোটবেলা থেকে হলেও তেমন প্রকাশিত নয়। ৩০শে পুরোদমে লিখতে শুরু করি ডায়রির পাতায় এবং ফেসবুক সৌজন্য এনে দিল অপার প্রয়াস, পরিচিতি এবং সৌভাগ্য ২০১৫ তে। প্রকাশিত যৌথ কাব্যগ্রন্থ- সময়ের নক্ষত্র, ভোরের পাখি, হৃদয়ে বাংলাদেশ, স্বপ্ন দিগন্ত, বর্ষা বরণ, বর্ষা উৎসব এবং অনুপ্রাণন ত্রৈমাসিক সাহিত্য পত্রিকাসহ সাহিত্য বিষয়ক বিভিন্ন অনলাইন ম্যাগাজিন ও পত্রিকায় লিখে থাকি নিয়মিত।

ইসমত আরা

ইসমত আরা। জন্ম: ২১ আগস্ট ১৯৬৭ইং, লালমনিরহাট জেলার হাতিবান্ধা থানায়...

ইকবাল রাশেদীন (তরুন)

ইকবাল রাশেদীন (তরুন)

জন্ম ৮ জুলাই ১৯৭২, ফরিদপুর। বাবা- সাইদুল ইসলাম, মা- রাশিদা ইসলাম।
স্ত্রী- ফারিহা তাজিন, পুত্র- ঈশান ইকবাল।

ব্যবস্থাপনায় এম কম এবং ফাইন্যান্সে এমবিএ, চার্টার্ড একাউন্ট্যান্সি পড়াশুনা করেছেন। চার্টার্ড একাউন্ট্যান্সি ছাত্র সংগঠন- বাংলাদেশ সিএ ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদে নির্বাচিত যুগ্মসম্পাদক, ভিপি এবং সভাপতি ছিলেন। ছিলেন রাজেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ছাত্র সংসদেও।

৮০ ও ৯০ এর দশকে যথাক্রমে ‘অধিকার’ ও ‘প্রাচী’ লিটল ম্যাগাজিন সম্পাদনার সাথে যুক্ত ছিলেন। বর্তমানে বাংলাদেশ ও ভারতের যৌথ উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত শিল্প-সাহিত্যের পত্রিকা ‘পূর্বপশ্চিম’ এর নির্বাহী সম্পাদক।

সম্মাননা: বাংলাদেশ সিএ ছাত্র পরিষদ সম্মাননা ২০১৪, ত্রিলোক সম্মাননা ২০১৪, তেজগাঁও কলেজ সম্মাননা ২০১৬।

গ্রন্থ: ৪টি কবিতার বই, ১টি ভ্রমণ কাহিনি, ২টি বিষয়ভিত্তিক কবিতার যৌথ বই।
নাটক: ১টি মঞ্চ নাটক, ১টি পথ নাটক।
সম্পাদনা গ্রন্থ: কবিতা সংকলন- ২টি, মুক্তিযুদ্ধ গদ্য- ১টি।

বর্তমানে ঢাকায় একটি উন্নয়ন প্রতিষ্ঠানের পরিচালক পদে কর্মরত। পাশাপাশি তিনি একজন আয়কর আইনজীবী।

ইকবাল রাশেদীন (তরুন)

ইকবাল রাশেদীন (তরুন) জন্ম ৮ জুলাই ১৯৭২, ফরিদপুর। বাবা- সাইদুল...

হুমায়ুন কবির

হুমায়ুন কবির। জন্ম ১৯৫৯ সালে নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী উপজেলার দেউটি গ্রামে। বাবা জালাল আহমেদ ও মা জফুরা বেগম। লেখালেখির শুরু ছাত্রাবস্থায়। মাঝে দীর্ঘ বিরতি। আবারও ফিরে এসেছেন লেখালেখিতে। কবিতা, উপন্যাস, গল্পগ্রন্থসহ তার প্রকাশিত বইয়ের সংখ্যা আটটি। ইতোপূর্বে প্রকাশিত তার উপন্যাসÑ কানফুল, আনছার আলীর গৃহত্যাগ এবং কবিতা অন্তহীন দীর্ঘশ্বাস পাঠকপ্রিয়তা পেয়েছে। সাহিত্যকর্মে অবদানের জন্য জিগীষা সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক পরিষদ তাকে জিগীষা সাহিত্য সম্মাননা -২০১৯ প্রদান করেছে।
সাবেক সরকারি কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির বর্তমানে দৈনিক বাংলার সাহিত্য সম্পাদক। তিনি সালমা ফৌজিয়া সুমি, ডা. শারমিন ফৌজিয়া ও সাইফুল কবির সোয়েবের বাবা। স্ত্রী নাজমুন নাহার লক্ষ্মী গৃহিণী।

প্রকাশিত বইসমূহÑ

কবিতাÑ
আমি তাকে ফিরছি খুঁজে
অন্তহীন দীর্ঘশ্বাস

উপন্যাসÑ
দায়
কানফুল
মেঘনাপারের শেফালী
আনছার আলীর গৃহত্যাগ

গল্পগ্রন্থÑ
শাহজাদী উপাখ্যান
আমিও ডিকশনারি দেখেছি কিন্তু পাইনি।

হুমায়ুন কবির

হুমায়ুন কবির। জন্ম ১৯৫৯ সালে নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী উপজেলার দেউটি গ্রামে।...

আবু জায়েদ

আবু জাঈদ। জন্ম: ২২শে জুলাই ১৯৮৩, ঢাকা। পড়াশুনা অসমাপ্ত রেখে একসময় কবি বাউণ্ডুলে জীবনের এলোমেলো আলপথে নেমে যান বেঁচে থাকার প্রয়োজনে, তাই বলে কাব্যচর্চা থেমে থাকেনি। এক সন্তানের জনক। এটি লেখকের প্রথম প্রকাশিত বই।

আবু জায়েদ

আবু জাঈদ। জন্ম: ২২শে জুলাই ১৯৮৩, ঢাকা। পড়াশুনা অসমাপ্ত রেখে...

ফিরোজ মাহমুদ

কবি ফিরোজ আহমেদ এর জন্ম ১৯৮১ খ্রিষ্টাব্দের ১ ডিসেম্বর গোপালগঞ্জ জেলার টুংগীপাড়া থানার অন্তর্গত গিমাডাংগা গ্রামে। পিতা শেখ আব্দুর সাত্তার ও মা সুফিয়া বেগমের পাঁচ সন্তানের মধ্যে তিনি দ্বিতীয়। মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা গ্রহনের পর তিনি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলা ভাষা ও সাহিত্যে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করেন। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি বিবাহিত এবং একটি পুত্র সন্তানের জনক। ছোটবেলা থেকেই তিনি কবিতা লেখা শুরু করেন। প্রাথমিক পথ চলার পর ২০১৩ খ্রিষ্টাব্দে তার প্রথম কাব্যগ্রন্থ ” গহীনে শূন্যতা” প্রকাশিত হয় প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান শোভা প্রকাশ থেকে। তারপর নিয়মিত তার কবিতা প্রকাশ হতে থাকে নানা প্রকাশ মাধ্যমে। সাহিত্যের ছোট কাগজগুলোতে তার কবিতা নিয়মিত প্রকাশ পাচ্ছে। “ঘাসফুল” নামক সাহিত্য সংগঠনের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন দীর্ঘদিন। বর্তমানে তিনি বহুল প্রচারিত সাপ্তাহিক পত্রিকা “স্বদেশ খবর” এর সাহিত্য সম্পাদচকের দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি দুই বাংলার মুখপত্র ” পূর্বপশ্চিম” পত্রিকার উপসম্পাদক হিসেবেও কাজ করে যাচ্ছেন।

কবির প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থসমূহঃ
১। গহীনে শূন্যতাÑ একুশে গ্রন্থমেলা ২০১৩ Ñশোভা প্রকাশ।
২। দ্বীপের সবুজÑ একুশে গ্রন্থমেলা ২০১৫ Ñঘাসফুল প্রকাশনী।
৩। জলবাড়িÑ একুশে গ্রন্থমেলা ২০১৫ Ñঘাসফুল প্রকাশনী।
৪। নির্বাসনের আগেÑ একুশে গ্রন্থমেলা ২০১৬ Ñশোভা প্রকাশ।

ফিরোজ মাহমুদ

কবি ফিরোজ আহমেদ এর জন্ম ১৯৮১ খ্রিষ্টাব্দের ১ ডিসেম্বর গোপালগঞ্জ...

ডাঃ আবেদা আফরোজা

ড. আবেদা আফরোজা ১৯৫৮ সালের ১২ই নভেম্বর পাবনা জেলার খয়েরসুতি নামক গ্রামে তার নানাবাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা মো. ইয়ার আলী সেখ এবং মা মোসা. রিজিয়া খাতুন। তার শৈশবকাল কেটেছে এই গ্রামেরই নির্জন পরিবেশে–একদিকে আম, জাম. কাঁঠাল, লিচু, পেয়ারা, বরই আর তাল-তমালের ছায়ায়, অন্যদিকে নানী-খালা আর মামা-মামীর স্নেহচ্ছায়ায়। তখন তার প্রতি দিবসের শৈশবের অবিচ্ছেদ্য রুটিন ছিল গাছে-চড়া, মাছ-ধরা, পাখির বাসা খোঁজা, কুতকুত-গোল্লাছুট- দাঁড়িয়াবান্ধা-রুমালচোর খেলা আর একাকি বনে-বাদাড়ে ঘুরে বেড়ানো। খয়েরসুতি জুনিয়র হাইস্কুলে তার আনুষ্ঠানিক পড়ালেখার সূচনা। সপ্তম শ্রেণিতে উত্তীর্ণ হওয়ার পর তিনি স্থায়ীভাবে বসবাস করেন পাবনা জেলার উপকণ্ঠে অবস্থিত চকপৈলানপুর (নয়নামতি) নামক গ্রামে, তার দাদাবাড়িতে। অতঃপর পাবনা আদর্শ গার্লস হাইস্কুল থেকে এস.এস.সি (১৯৭২), পাবনা সরকারী এডওয়ার্ড মহাবিদ্যালয় থেকে এইচ.এস.সি (১৯৭৪) ও বাংলা ভাষা ও সাহিত্যে অনার্স (১৯৭৭) এবং রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এম.এ ডিগ্রি লাভ করেন। পরবর্তীতে একই বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগ থেকে এম.ফিল (১৯৮৮) এবং ইনস্টিটিউট অব বাংলাদেশ স্টাডিজ (আই.বি.এস), থেকে পি.এইচ.ডি (১৯৯৫) ডিগ্রী অর্জন করেন। পেশাগত জীবনে তিনি পাবনার আতাইকুলা-মাধপুর আমেনা খাতুন মহাবিদ্যালয, পাবনা ক্যাডেট কলেজ (খণ্ডকালীন) ও বেরুয়ান মহিলা কলেজে অধ্যাপনা করেন। বর্তমানে তিনি সাভারের গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাষা-যোগাযোগ ও সংস্কৃতি বিভাগে সিনিয়র সহকারী অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত আছেন। ইতঃপূর্বে ২০১৩ সালে বাংলাদেশের মহিলা-রচিত উপন্যাসে বিষয়-বৈচিত্র্য ও জীবন-চিন্তা: ১৯৪৭-৮৭ নামক পি-এইচ.ডি গবেষণা– অভিসন্দর্ভটি গ্রন্থাকারে প্রকাশিত হয়েেেছ। তাছাড়া দেশের বিভিন্ন জাতীয় পর্যায়ের পত্র-পত্রিকায় তাঁর অনেক প্রবন্ধ-নিবন্ধ ছড়িয়ে-ছিটিয়ে আছে।

ডাঃ আবেদা আফরোজা

ড. আবেদা আফরোজা ১৯৫৮ সালের ১২ই নভেম্বর পাবনা জেলার খয়েরসুতি...

Scroll To Top
Close
Close
Shop
0 Wishlist
0 Cart
Close

My Cart

Shopping cart is empty!

Continue Shopping